বিদ্যুতের শক লাগলে করনীয় কয়েকটি বিষয়

বাড়িতে দুর্ঘটনাবশত মাঝে মধ্যেই ছোটখাটো শক লেগে যায়। কর্মক্ষেত্রেও শক লেগে যাওয়া নিত্য নৈমিত্তিক ঘটনা। শক লেগে গেলে কেউবা গরম দুধ খাওয়ান , কেউবা গায়ে কম্বল জড়িয়ে দেন। প্রাথমিক চিকিৎসা করার অনেক পরে হাসপাতাললে নিয়ে যাওয়া হয়। অনেক সময় সঠিক পদক্ষেপের অভাবে শক লাগা ব্যক্তির মৃত্যু অবধি ঘটতে পারে। আসু জেনে নেওয়া যাক শক লাগলে ঠিক কি কি করা উচিত।

১. দূরে থাকা- যে ব্যক্তি বিদ্যুতপৃষ্ট হয়েছেন তাঁর গায়ে কখনও হাত দেওয়া উচিত নয়।

২. স্যুইচ বন্ধ করা- যে স্যুইচে হাত দিয়ে শক লেগেছে ততক্ষনাত তা বন্ধ করে দেওয়া উচিত। তা না হলে তাঁর যেমন ক্ষতি হবে। পরে যেকেউ হাত দিলে তার ফলও মারাত্মক হতে পারে।

৩. ব্যক্তিকে সরিয়ে ফেলা- শক লাগা ব্যক্তিকে খুব দ্রুত শুকনো জিনিস, শুকনো বাঁশের টুরো বা রাবার দিয়ে অন্য স্থানে সরিয়ে দেওয়া সরকার।

৪. বিদ্যুত অভিসে খবর দেওয়া- স্যুইচ বন্ধ করা না সম্ভব হলে সঙ্গে সঙ্গে বিদ্যুতের অফিসে ফোন করা দরকার। কারণ স্যুইচে কারেন্ট থেকে গোটা বাড়ি বডি হয়ে যেতেও পারে।

৫. জল থেকে দূরে রাখুন- বিদ্যুত পৃষ্ট ব্যক্তির গায়ে জল দেবেন না। জল লেগে ফল আরও মারাত্মক হতে পারে।

৬. ঢিলে ঢালা পোশাক পড়ানো দরকার- কোমর বা হাতে, গায়ে আঁটোসাটো কিছু থাকলে তা হালকা করে দেওয়া দরকার।

৭. বুকের ওপর চাপ দেওয়া- জলে ডোবার মতই শক লাগা ব্যক্তিকে সোজা হয়ে শুইয়ে বুকের ওপর চাপ দেওয়া দরকার।

৮. কৃত্রিম শ্বাস নেওয়ার ব্যবস্থা- শক লাগলে ততক্ষনাত সেই ব্যক্তিকে কৃত্রিম ভাবে শ্বাস দেওয়া দরকার। কারণ শক লাগা ব্যক্তির শ্বাস নেওয়ার ক্ষমতা সাধারণের তুলনায় কমে যায়।

৯. চিকিসা শুরু করা- যত শীঘ্র সম্ভব হাসপাতালের চিকিৎসা শুরু করা দরকার। প্রাথমিক চিকিৎসা করার পরে হাসপাতালে নিয়ে গেলে বিপদের সম্ভাবনা কমে যায়।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

error: Content is protected !!
Inline
Inline