বাচ্চাকে স্মার্ট তৈরি করতে এই কাজগুলি করুন

শিশুর জীবনে বাবা-মার অবদান অনস্বীকার্য। চলতে শেখা থেকে কথা বলানো সবেতেই তাঁরা সমান ভাবে গুরুত্ব দেন। তাই পরিবেশের সঙ্গে মানিয়ে নেওয়ার জন্য স্মার্ট তৈরি করাটাও তাদের দায়িত্বের মধ্যে পড়ে। শিশুর জীবনের প্রথম দশ বছরেই সমস্ত দিকের বিকাশ ঘটে। তাই  এই প্রথম দশ বছর বাবা-মার কাছেও খুব ভাইটাল। নিজের বাচ্চাকে স্মার্ট করতে নীচের কাজগুলি অবশ্যই করুন-

image source

১.  ভালোভাবে খাওয়ানো- 

পুষ্টি ও বিকাশের ক্ষেত্রে খাবারের গুরুত্ব অসীম। পুষ্টি না হলেও শিশুর বিকাশ সম্ভব নয়।শিশুকে ভিটামিন ও ক্যালসিয়াম, জিংক, আয়রন, শর্করা জাতীয় খাবার খাওয়ানো অভ্যাস করা উচিত।

২.  খেলাধূলো করার সুযোগ দেওয়া- 

শিশু খেলাধূলা যত করবে ততই পরিবেশের সঙ্গে মানিয়ে নেওয়ার বোধ তৈরি হবে। তাঁর মধ্যে একঘেঁয়েমি, ক্লান্তি এসবের প্রবেশ নিষেধ হয়ে যাবে।একই সঙ্গে জ্ঞানের বিকাশ ঘটবে।

৩.  তাড়াতাড়ি ঘুম- 

ছোটো থেকে আরলি টু রাইস, আরলি টু বেড অভ্যাস করানো দরকার। ফলে শৃঙ্খলার মধ্যে বাঁধা থাকবে শিশু। আর ততই বিকাশ ঘটা সম্ভব।

৪. অন্য ভাষা শেখানো- শিশুকে মাতৃভাষা ছাড়াও অন্যভাষা শেখাতে শুরু করুন যাতে বড় হলে যেথা সেথা গিয়ে নিজেকে মানিয়ে নেওয়ার ক্ষমতা রাখতে পারে।

৫. টিভি দেখার লিমিট রাখুন- 

বাচ্ছাদের টিভিতে কার্টুন দেখতে অবশ্যই দিন। কিন্তু তারমানে সারাদিন টিভিতে মুখ গুঁজে পড়ে থাকবে এমনটা করবেন না। তাহলে পড়াশুনা শিকেয় উঠবে। সঙ্গে জগত্টাও চেনা হবে না।

৬. সন্তানের সঙ্গে পড়া- 

পড়তে শেখাতে শুরু করবেন যখন তখন থেকেই বাচ্চার সঙ্গে নিজেও পড়ুন। তাহলে তাঁর শিখতে অসুবিধা হবে। এছাড়াও স্কুলে ভর্তি হওয়ার পরও নিয়মিত পড়ানোর সঙ্গে নিজেও পড়ুন।

৭. ভিডিও গেম খেলা- 

ক্যালিফোর্নিয়া বিশ্ববিদ্যালয়ের গবেষকদের মতে, ভিডিও গেম বাচ্চাদের চোখের সমস্যা সমাধান, প্রতিযোগী হওয়া, বিচার-বুদ্ধি ক্ষমতা বাড়াতে সাহায্য করে।

৮. চেষ্টা করতে দিন- 

যেকোনো কাজ কেউ একবারে শেখেনা। শিশুকে বারবার চেষ্টা করতে দিন। যত চেষ্টা করবে সে ততই নতুন কিছু শিখবে। এর ফলে একদিন সে সঠিক টা করতেই পারবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

error: Content is protected !!
Inline
Inline